logo
বাংলাদেশ নার্সেস এসোসিয়েশন (বিএনএ)
প্রতিষ্ঠার সালঃ ২০১৭ খ্রি

পেশা হিসেবে নার্সিং

নার্সিং একটি সেবামূলক পেশা। অনেক পেশার ভিড়ে পেশা হিসেবে নার্সিং দিন দিন বেশ জনপ্রিয় হয়ে উঠেছে। বাংলাদেশসহ বিশ্বের সব দেশেই রয়েছে নার্সদের চাহিদা। আসলে এটি এমন একটি পেশা, যার চাহিদা নির্দিষ্ট কোনো গণ্ডির মধ্যে সীমাবদ্ধ নয়। একদিকে যেমন বিদেশে এ পেশায় কাজ করার সুযোগ রয়েছে, অন্যদিকে দেশেও কাজ করার অপার সুযোগ রয়েছে।  দিন দিন মানুষ বাড়ছে। বাড়ছে হাসপাতাল। তার সঙ্গে পাল্লা দিয়ে বাড়ছে রোগ। সঙ্গে সঙ্গে বাড়ছে নার্সের চাহিদা।

বর্তমানে বাংলাদেশের প্রায় ৬ হাজার ৩৫০ জন নার্স সৌদি আরব, লিবিয়া, যুক্তরাজ্যসহ বিশ্বের ১৩টি দেশে কর্মরত রয়েছেন। এ ছাড়াও দেশে সরকারি বেসরকারি হাসপাতাল, সমাজসেবা অধিদপ্তর, হোটেল-মোটেল, এনজিও এমনকি পর্যটন করপোরেশনেও ক্যারিয়ার গড়ার সুযোগ রয়েছে। নার্সিংয়ের ওপর স্নাতক পর্যায়ের পড়ালেখা করার সুযোগ কিছুদিন আগেও আমাদের দেশে ছিল না। কিন্তু বর্তমানে সরকারি পর্যায়েবেসিক বিএসসি নার্সিং কলেজে এ কোর্স চালু রয়েছে। এদের প্রতিটিতে আসন সংখ্যা ১০০টি করে। কলেজগুলোতে বিএসসি ইন নার্সিংয়ের ওপর চার বছরের অনার্স কোর্স করার সুযোগ রয়েছে। এর বাইরেও কিছু বেসরকারি প্রতিষ্ঠান রয়েছে। বিদেশি কারিকুলামের সঙ্গে সামঞ্জস্য রেখেই বাংলাদেশ নার্সিং এন্ড মিডওয়াইফারি কাউন্সিল দেশের  কারিকুলাম নার্সিং কোর্স কারিকুলাম প্রণয়ন করে থাকে।  দেশে এখন প্রায় সব জেলা-উপজেলা শহরগুলোতেই সরকারি-বেসরকারি হাসপাতাল বা ক্লিনিক গড়ে উঠেছে। আরও হচ্ছে। এসব প্রতিষ্ঠানে প্রতিবছরই নার্সের প্রয়োজন হয়। সরকারি প্রতিষ্ঠানে নার্স নিয়োগ করে বাংলাদেশ সরকারের নার্সিং ও  মিডওয়াইফারি অধিদপ্তর । এই  অধিদপ্তরের মাধ্যমে সরকার প্রায় প্রতি বছরে কয়েক হাজার নার্স নিয়োগ করে থাকে। তাই এ পেশায় যাঁরা ক্যারিয়ার গড়তে চান, তাঁরা এখন থেকে এর প্রস্তুতি শুরু করে দিতে পারেন।

এ পেশা শুরুর আগে আপনাকে ডিপ্লোমা ইন নার্সিং অথবা ব্যাচেলর অব সায়েন্স ইন নার্সিং (বিএসসি) কোর্স করতে হবে এবং বাংলাদেশ নার্সিং এন্ড মিডওয়াইফারি কাউন্সিলে পেশাগত নিবন্ধন করতে হবে ।  নার্সিং পেশা একটি জনসেবামূলক পেশা। এ পেশায় আসতে হলে মানুষের সেবার মানসিকতা থাকতে হবে।

একজন নার্সকে সাধারণত চিকিৎসকের নানা কাজের সহকারী হিসেবে হাসপাতাল বা ক্লিনিকের আউটডোর ও ইনডোর, অপারেশন থিয়েটারে কাজ করতে হয়। এ ছাড়া রোগীক ওষুধ খেতে সহায়তা করাসহ নানাভাবে সেবা করারও কাজ করতে হয়। বাংলাদেশ নার্সিং কাউন্সিল থেকে জানা গেছে, বর্তমানে দেশে তো বটেই, বিদেশেও নার্সিং পেশার দক্ষ ও অভিজ্ঞ লোকের চাহিদা রয়েছে ব্যাপক। বিশেষ করে মালয়েশিয়া, কাতার, কানাডা, অস্ট্রেলিয়াসহ বিভিন্ন দেশে। তাই এ পেশায় বর্তমানে যেমন রয়েছে সম্মান, তেমনি রয়েছে সম্ভাবনা। এখানেও অন্যান্য চাকরির মতো ভালো বেতন ও অন্যান্য সুবিধার পাশাপাশি পদোন্নতির ব্যবস্থা আছে। দক্ষতা ও জ্যেষ্ঠতার ভিত্তিতে নার্স থেকে সিনিয়র স্টাফ নার্স ও সুপারিনটেনডেন্ট, নার্সিং ট্রেনিং কলেজের প্রশিক্ষক হওয়ার সুযোগ আছে। এ ছাড়া সরকারের অধিদপ্তরের উচ্চপদস্থ পদে যেতে পারেন নার্সরা।